১৬ বলে ফিফটি হাকিয়ে রেকর্ডের পর রেকর্ড ভাঙলেন ইশান

চার, ছক্কা, চার, ছক্কা! দুবাইয়ে শুক্রবার আগুন জ্বালিয়ে দিলেন ঈশান কিষান। ব্যাট হাতে বাইশ গজে। যাতে তোলপাড় একের পর এক রেকর্ড। মরুশহরে ঝড় ওঠার ইঙ্গিত ছিলই। প্লে অফে উঠতে হলে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সকে যে অসাধ্য সাধন করতে হবে! তাই শেষ ম্যাচে নখ দাঁত বের করে রোহিত শর্মারা ঝাঁপিয়ে পড়বেন, তা প্রত্যাশিতই ছিল।

সেই ঝড়ের পূর্বাভাস সত্যি করেই শুক্রবার ঈশান কিষানের ব্যাটে টর্নেডো। চলতি মরশুমে দ্রুততম হাফসেঞ্চুরি করে গেলেন ঈশান কিষান। মাত্র ১৬ বলে। কেকেআরকে টপকে শেষ চারে জায়গা করার জন্য মিরাকল করতে হবে মুম্বইকে। সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে ন্যূনতম ১৭১ রানে হারাতেই হবে। স্কোরবোর্ডে ২৫০ প্লাস রান তুলতেই হবে।

এমন সমীকরণ মেনেই ব্যাট হাতে অগ্ন্যুৎপাত ঘটিয়ে গেলেন ঈশান কিষান। মহম্মদ নবি, উমরান মালিক, সিদ্ধার্থ কৌলদের ওপর তাই শুরু থেকেই চড়াও হলেন মুম্বইয়ের তরুণ তুর্কি। পাওয়ার প্লেতেই ঈশানের ব্যাট থেকে বেরোল দুটো ছক্কা, ১০টা বাউন্ডারি।

প্ৰথম ৬ ওভারেই সানরাইজার্সকে বেধড়ক পিটিয়ে মুম্বই তুলে ফেলেছিল ৮৩। ঈশান কিষানের ১৬ বলে হাফসেঞ্চুরি টুর্নামেন্টের ইতিহাসে তৃতীয় দ্রুততম। চলতি মরসুমের অবশ্য এটাই দ্রুততম।

মুম্বইয়ের কোনও ব্যাটসম্যানের করা হাফসেঞ্চুরির নজিরে এটাই সবথেকে কম বলে হাঁকানো। মুম্বই ইন্ডিয়ান্স তারকাদের। মধ্যে এর আগে দ্রুততম হাফসেঞ্চুরি হাঁকানোর রেকর্ড ছিল কায়রণ পোলার্ডের। ২০১৬-য় কেকেআরের বিরুদ্ধে ১৭ বলে ফিফটি করেছিলেন পোলার্ড।

এক মরশুম পরে ২০১৭-য় ঈশান কিষানই কেকেআরের বিরুদ্ধে ১৭ বলে হাফসেঞ্চুরি করে গিয়েছিলেন। শুক্রবার আরও এক বল কমে ফিফটি হাঁকিয়ে ঈশান নিজের এবং পোলার্ডের রেকর্ড ভেঙে দিলেন।

এছাড়াও পাওয়ার প্লে-তে ঈশান ২২ বলে ৬৩ করে যান। আইপিএলের ইতিহাসে এত রানের রেকর্ডের তালিকায় যা চতুর্থ। ঈশান কিষানকে শেষ পর্যন্ত ফেরান উমরান মালিক। ঋদ্ধিমান সাহার হাতে ক্যাচ তুলে আউট হওয়ার আগে ঈশান কিষান ৩২ বলে ৪টে ছক্কা এবং ১১টা বাউন্ডারির সাহায্যে ৮৪ করে যান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *