স্কুল করার নিয়ম আছে, অনেকেই মানেন না

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘স্কুল করার একটা নিয়ম আছে। অনেকে সেই নিয়ম মানেননি। যেখানে সেখানে যখন তখন একটা স্কুল খুলে ফেলেছেন। হয়তো ছাত্র-ছাত্রীই নাই সেখানে।

এরকমও অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আছে যেখানে ছাত্র-ছাত্রীদের থেকে শিক্ষকের সংখ্যাও বেশি।’ বৃহস্পতিবার রাতে একাদশ জাতীয় সংসদের দশম (মুজিববর্ষ উপলক্ষে বিশেষ) অধিবেশনে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সরকারিকরণ না করার কারণ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, সরকার সবাইকে শিক্ষা নীতিমালার মধ্যে আনার যে উদ্যোগ নিয়েছে তা অব্যাহত থাকবে। কারণ সরকার চায় দেশ আরও এগিয়ে যাক। এসময় তিনি অটোপ্রমোশনে দেশব্যাপী সৃষ্ট মিশ্র প্রতিক্রিয়াতেও নিজস্ব অভিমত ব্যক্ত করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘অটোপ্রমোশনের ব্যাপারে আমি বলবো- আগেতো আমাদের সেমিস্টার সিস্টেম ছিলনা। আমি প্রথমবার সরকারে এসে এই সেমিস্টার সিস্টেম চালু করি। কাজেই সারা বছর তারা যে পরীক্ষা দিয়েছে সেটার ভিত্তিতেই একটা রেজাল্ট দেয়া।

এটাতো ইংল্যান্ডও দিয়েছে, পৃথিবীর অনেক দেশই দিয়েছে। এতে খুব বেশি একটা ক্ষতি হয়, তা নয়।’ শেখ হাসিনা বলেন, ‘তারপরেতো স্কুল খুলবে, পড়বে, পরীক্ষা দেবে যারা টিকে থাকবে। নইলে আবার পরীক্ষা দেবে। সে সুযোগতো রয়েছে।

কাজেই একটা অটোপ্রমোশনে খুব যে বেশি ক্ষতি হয়ে গেল, এটা কিন্তু ঠিক নয়।’ তিনি উদাহারণ দিয়ে বলেন, একদিন বসে লিখে পাস করেও সে পাসই পাস আর সারাবছর পরীক্ষা দিয়ে যে রেজাল্ট সে রেজাল্ট কিছু না এটাতো হতে পারেনা।

বরং সেইভাবে যদি সারা বছরের রেজাল্ট একসঙ্গে করে প্রমোশন দিয়ে দেয়া যায় তাহলেওতো আমি মনে করি তাঁদের মেধার পরিচয়টা পাওয়াই যায়।’

Check Also

৫৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগ কার্যক্রমে যাচ্ছে এনটিআরসিএ

৫৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগ কার্যক্রমে যাচ্ছে এনটিআরসিএ

বেসরকারি বিভিন্ন স্তরের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৫৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হতে যাচ্ছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অনুমতি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *