মাধ্যমিকে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার ফল এ সপ্তাহে

করোনা পরিস্থিতির মধ্যে তালাবন্দি ক্লাসরুম আর বড় কয়েকটি পাবলিক পরীক্ষা বাতিলের মধ্য দিয়ে শেষ হচ্ছে চলতি শিক্ষাবর্ষ। স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকলেও সংসদ টেলিভিশন,

রেডিও এবং অনলাইনে ক্লাস সম্প্রচার নতুন সম্ভাবনা তৈরি করেছে বলে নীতিনির্ধারকরা দাবি করছেন। ভার্চুয়াল ক্লাসের সুবিধা কত ভাগ শিক্ষার্থী নিতে পারছে তা নিয়ে বিতর্ক থাকলেও নানা মাধ্যমে ৯০ শতাংশ শিক্ষার্থী এর আওতায় এসেছে বলে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে দাবি করা হয়েছে।

দেশে করোনা পরিস্থিতির কারণে গত ৯ মাস ধরে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত বন্ধ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সচল হচ্ছে না।

চলমান সঙ্কটের কারণে চলতি বছরের জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষাসহ ক্লাস পরীক্ষাও বাতিল করে সকলকে পরবর্তী ক্লাসে উত্তীর্ণ করা হয়েছে।একইসঙ্গে এইচএসসি সমমান পরীক্ষা বাতিল করে অটোপাসের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের হাতে সনদ তুলে দেয়া হবে বলে ঘোষণা দিয়েছে সরকার।

মাধ্যমিকে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার ফল এ সপ্তাহে

পরীক্ষার্থীদের জেএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে নম্বর ও জিপিএ নির্ধারণের কাজ চলছে। এ বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মাহবুব হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতির মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে ক্লাস কার্যক্রম চালিয়ে নেয়া একটি বড় চ্যালেঞ্জ ছিল।

এ চ্যালেঞ্জে আমরা অনেকটা সফল হয়েছি। টিভি ও ভার্চুয়াল মাধ্যমে অসমাপ্ত সিলেবাস শেষ করা হয়েছে। এতে আমাদের ৯০ শতাংশ শিক্ষার্থী যুক্ত হয়েছে। তাদের পঠন জ্ঞান যাচাইয়ে ১৮টি অ্যাসাইনমেন্ট করানো হয়েছে। ৯৮ শতাংশ শিক্ষার্থী তা নিজ নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে জমা দিয়েছে।

যারা এ কার্যক্রম থেকে বঞ্চিত হয়েছে তাদের বিশেষভাবে এগিয়ে নেয়া হবে।’ সচিব আরও বলেন, ‘বর্তমান সংকটময় পরিস্থিতিতে অনেক সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। অনলাইন ক্লাস নিয়মিত চালিয়ে নেয়া হবে।

করোনার কারণে দুটি পাবলিক পরীক্ষা বাতিল করতে হয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে শিক্ষার্থীরা সশরীরে ক্লাস করার সুযোগ থেকে বঞ্চিত রয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সব উন্নয়নমূলক কার্যক্রমের গতি বহাল রয়েছে।’

Check Also

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলছে ৩০ মার্চ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলছে ৩০ মার্চ আগামী ৩০ মার্চ থেকে প্রাথমিক,মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *