প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে

প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৩২ হাজার ৫৭৭টি পদে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে অনুষ্ঠিত হবে। এরই মধ্যে প্রস্তুতি শেষ পর্যায়ে। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, এই নিয়োগ হলে শিক্ষক সংকট কেটে যাবে।

দেশের ৬৫ হাজার প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৫০ হাজারের বেশি শিক্ষকের পদ খালি। করোনার কারণে সীমিত পরিসরে চলছে স্কুল। স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতে প্রতি শ্রেণিতেই বেড়েছে শাখা।

এ সময়কে সামনে রেখে প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে লিখিত পরীক্ষার। ধাপে ধাপে জেলা পর্যায়ে পরীক্ষার আয়োজন করা হবে। সারাদেশে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নিয়োগ দেওয়া হবে ৩২ হাজারের বেশি সহকারী শিক্ষক।

এর মধ্যে প্রাক প্রাথমিক পর্যায়ে নিয়োগ পাবেন ২৫ হাজার ৬৩০ জন। বাকিগুলো শূন্যপদে নিয়োগ দেওয়া হবে। তবে গত দুই বছর শিক্ষক নিয়োগ স্থগিত থাকায় শূন্যপদের সংখ্যা বেড়েছে। এজন্য বাড়ানো হবে শিক্ষক নিয়োগের সংখ্যা।

এদিকে পুরোদমে ক্লাস ও পরীক্ষা চালু হলে এই শিক্ষক সংকট আরো তীব্র হবে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

সে কারণেই ৩২ হাজার ৫৭৭ পদে সহকারি শিক্ষক নিয়োগের সিদ্ধান্ত নেয় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। গত বছরের নভেম্বরেই এ পদে আবেদন করেন ১৩ লাখ ৯ হাজার ৪৬১ জন।

তবে করোনার কারণে পরীক্ষা নেয়া যায়নি। এ অবস্থায় জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে নেয়া হবে এই পরীক্ষা। আর গবেষকরা বলছেন, এই নিয়োগ প্রক্রিয়া যাতে স্বচ্ছ হয়, সেদিকে সর্বোচ্চ নজরদারি থাকতে হবে।

এই পরামর্শ বিবেচনায় নিয়ে মন্ত্রণালয় বলছে, পরীক্ষা সংক্রান্ত যে কোনো অভিযোগ সরাসরি জানাতে।

Check Also

বেফাক পরীক্ষার ফলাফল

৪৫তম বেফাক পরীক্ষার ফলাফল ২০২২ । কওমী মাদরাসা রেজাল্ট

৪৫তম বেফাক পরীক্ষার ফলাফল ২০২২। কওমী মাদরাসা রেজাল্ট। বেফাক ৪৫তম কেন্দ্রীয় পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.