প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার প্রস্তুতি ২০২১

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার প্রস্তুতি ২০২১ সাড়ে ৩২ হাজার শিক্ষক নিয়োগে চাকরি নামক সোনার হরিণ লুফে নেওয়ার সুবর্ণ সুযোগ। প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগে এবার সব মিলিয়ে সাড়ে ৩২ হাজার শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে।

দেশের ইতিহাসে সরকারি কোনো চাকরিতে এটিই সবচেয়ে বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি। বেতন স্কেল ১৩তম গ্রেডে উন্নীত হওয়ায় অনেকেরই আগ্রহ বেড়েছে।

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে মোট নম্বরঃ

গতবারের মতো এবারও প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার মোট নম্বর ১০০। এর মধ্যে লিখিত (এমসিকিউ) পরীক্ষায় ৮০ আর মৌখিক পরীক্ষায় নম্বর ২০। এমসিকিউ পরীক্ষায় পাস হলে মৌখিক পরীক্ষায় ডাকা হবে।

মৌখিক পরীক্ষায় টিকলে যাচাই-বাছাই শেষে চূড়ান্ত নিয়োগ দেওয়া হবে। বুঝতেই পারছেন আপনার জন্য একটা বড় সুযোগ অপেক্ষা করছে। এই সুযোগ হাতছাড়া করার প্রশ্নই আসে না।

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে প্রার্থী সংখাঃ

সারা দেশে এ বছর ১৩ লাখের মতো প্রার্থী আবেদন করেছেন, গতবার এ সংখ্যা ছিল প্রায় ২৬ লাখ। এ বছর আবেদনের যোগ্যতা হিসেবে নারী-পুরুষ উভয়ের ক্ষেত্রেই কমপক্ষে স্নাতক পাস চাওয়া হয়েছে।

তাই আবেদন গত বছরের তুলনায় কম পড়েছে। তবে বেতন স্কেল ১৩তম গ্রেডে উন্নীত হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবীদেরও আগ্রহ বেড়েছে। তাই অনুমান করা যায়, প্রার্থী তুলনামূলক কম থাকলেও প্রতিযোগিতা কঠিনই হবে। এ বিষয়টি মাথায় রেখেই প্রস্তুতির ছক ঠিক করতে হবে।

 
  • মোট আবেদনকারী : ১৩ লাখ ৯ হাজার ৪৬১ জন।
  • মোট নিয়োগ : ৩২,৫৭৭ জন।
  • প্রাক-প্রাথমিক ২৫,৬৩০ + সহকারী শিক্ষক ৬,৯৪৭।️
  • ৪০ জনের বিপরীতে নিয়োগ পাবেন ১ জন।

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে মানবন্টনঃ

কর্তৃপক্ষ বিষয়ভিত্তিক শিক্ষক নিয়োগের উদ্দেশ্যে বিশেষ করে গণিত ও বিজ্ঞান বিষয়ের কথা চিন্তা করে ২০ শতাংশ পদে বিজ্ঞান বিষয়ে স্নাতক বা সমমানের ডিগ্রিধারী প্রার্থীকে নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

নতুন বিধিমালা অনুযায়ী, আগের মতোই ৬০ শতাংশ নারী, ২০ শতাংশ পোষ্য এবং ২০ শতাংশ পুরুষ প্রার্থী নিয়ে পদগুলো পূরণ করা হবে। তাই বিজ্ঞান ছাড়া অনান্য বিষয়ে স্নাতক করা প্রার্থীদের প্রতিযোগিতায় টিকতে হলে একটু বেশিই পড়াশোনা করতে হবে।

  • মোট নম্বর ১০০।
  • লিখিত ৮০ এবং মৌখিক ২০।
  • প্রতিটি প্রশ্নের মান ১।
  • প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নম্বর কাটা যাবে। অর্থাৎ চারটি উত্তর ভুল হলেই কাটা যাবে ১ নম্বর।
  • লিখিত ৮০ এর মধ্যে বাংলা -২০, ইংরেজি -২০, গনিত -২০ এবং সাধারন জ্ঞান ও বিজ্ঞান -২০।
  • মৌখিক পরীক্ষার ২০ এর মধ্যে উপস্থিতি- ৫, স্মার্টনেস – ৫, এস এস সি ও এইচএসসির ফলাফলের উপর – ৫, প্রশ্নের উত্তর – ৫।

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার হলে করণীয়ঃ

প্রবেশপত্র সঙ্গে আনতে হবে। বই, উত্তরপত্র, নোট,
কাগজপত্র, ক্যালকুলেটর, মোবাইল ফোনসহ ইলেকট্রিক ঘড়ি ও কোনো ধরনের ইলেকট্রিক ডিভাইস সঙ্গে রাখা যাবে না। উত্তরপত্র পূরণ করতে হবে সতর্কতার সঙ্গে। অসাবধানতাবশত ভুল হলে উত্তরপত্র বাতিল হতে পারে। কালো কালির বলপয়েন্ট কলম দিয়ে ওএমআর উত্তরপত্র পূরণ করা ভালো।

প্রত্যেক প্রশ্নের উত্তরের জন্য একটি বৃত্তাকার ঘর ভরাট করতে হবে। একই প্রশ্নের উত্তরে
একাধিক উত্তরটি বাতিল হবে ও নম্বর কাটা যাবে।
কোনো প্রশ্নের উত্তর ভুল হলে তা কেটে অন্য কোনো ঘর ভরাট করা যাবে না। ওএমআর শিট ভাঁজ করা যাবে না, নির্ধারিত ঘর ছাড়া উত্তরপত্রের অন্য কোথাও দাগ দেয়া যাবে না।

রোল নম্বর, প্রশ্নপত্রের সেট কোড, জেলা কোড, উপজেলা/থানা কোড, সেক্স কোড নম্বর অবশ্যই পূরণ করতে হবে, নইলে উত্তরপত্র বাতিল হবে। ওএম আর শিটে রোল নম্বরের ঘর পূরণ করার সময় রোল নম্বরের নিচের বৃত্তাকার ঘরগুলোতে সঠিক সংখ্যা কালো কালির বলপয়েন্ট কলম দ্বারা পুরো ভরাট করতে হবে। হাজিরা শিটে খাতার ক্রমিক নম্বর ও প্রশ্নের সেট
নম্বর লিখে নির্ধারিত ঘরে প্রার্থীকে স্বাক্ষর করতে
হবে।

Check Also

বাংলা ভাষা ও সাহিত্য – মধ্যযুগ

বাংলা ভাষা ও সাহিত্য – মধ্যযুগ ৫১. মহুয়া পালা কোন কাহিনী নিয়ে রচিত? উত্তর: বেদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *