প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকগণের জন্য শিক্ষাক্রম বিস্তরণ প্রশিক্ষণ আয়োজন প্রসঙ্গে DPE এর নির্দেশনা

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকগণের জন্য শিক্ষাক্রম বিস্তরণ প্রশিক্ষণ আয়োজন প্রসঙ্গে DPE এর নির্দেশনা শিক্ষাক্রম বিস্তরণ প্রশিক্ষণ ২০ সেপ্টেম্বর থেকে ইউআরসিতে শুরু হচ্ছে। প্রতি ব্যাচে প্রশিক্ষণার্থী ৩০ জন। প্রতি ব্যাচের প্রশিক্ষণ কোর্সের মেয়াদ ৩ দিন। কারিকুলাম বিস্তরণ বিষয়ক মুক্তপাঠের অনলাইন প্রশিক্ষণের সনদ থাকতে হবে।যাঁরা এখনো মুক্তপাঠে কোর্সটি সম্পন্ন করে সার্টিফিকেট অর্জন করেন নি,তাঁরা দ্রুত কোর্সটি সম্পন্ন করুন।

 
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর
সেকশন-২, মিরপুর, ঢাকা-১২১৬
 
স্মারক নং ৩৮.০১.০০০০, ৬০১,৯৯, ০০৩, ২৩-১৪৬
তারিখ: ৩০ ভাদ্র, ১৪৩০ ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৩ খ্রিস্টাব্দ
বিষয়: প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকগণের জন্য শিক্ষাক্রম বিস্তরণ প্রশিক্ষণ আয়োজন প্রসঙ্গে।  উপর্যুক্ত বিষয়ের পরিপ্রেক্ষিতে জানানো যাচ্ছে যে, চতুর্থ প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়ন কর্মসূচী (পিইডিপ৪) এর আওতায় ২০২০-২৪ অর্থবছরে ইউআরসি/ টিআরসিতে ০৩ (তিন) দিন ব্যাপি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকগণের জন্য শিক্ষাক্রম বিস্তরণ প্রশিক্ষণ আয়োজনের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে এবং এ লক্ষ্যে ইতোমধ্যে তাঁর অনুকূলে প্রয়োজনীয় অর্থ ছাড় করা হয়েছে।
 
শিক্ষকগণের জন্য শিক্ষাক্রম বিস্তরণ প্রশিক্ষণ কার্যক্রম বাস্তবায়নের নিমিত্ত নিম্নবর্ণিত নির্দেশনাবলি অনুসরণপূর্বক মথাযথভাবে প্রশিক্ষণ পরিচালনার জন্য অনুরোধ করা হল। ক) বর্ণিত প্রশিক্ষণটি আগামী ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৩ তারিখ থেকে শুরু করতে হবে। কোন যৌক্তিক কারণে সময় পরিবর্তন করতে প্রশিক্ষণ বিভাগকে অবহিত করে পূর্বানুমতি গ্রহণ করতে হবে। সাপ্তাহিক ছুটির দিন (শুক্র ও শনিবার) প্রশিক্ষণ চলমান থাকবে। শুধুমাত্র সরকার কর্তৃক নির্ধারিত ছুটির দিনসমূহে প্রশিক্ষণ বন্ধ থাকবে।
 
গ) ২০২৩-২৪ সনে নতুনভাবে প্রণীত শিক্ষকগণের জন্য শিক্ষাক্রম বিস্তরণ প্রশিক্ষণ সহায়িকা ব্যবহার করে প্রশিক্ষণ পরিচালনা করতে হবে। এ সহায়িকার উপর প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত মাস্টার টেইনার/কী ট্রেইনারগণই প্রশিক্ষণ পরিচালনা করবেন। প্রশিক্ষণ বিভাগ কর্তৃক সরবরাহকৃত শিক্ষকগণের জন্য শিক্ষাক্রম বিস্তরণ প্রশিক্ষণ ম্যানুয়াল ও প্রশিক্ষণসূচীর আলোকে প্রশিক্ষকগণ প্রশিক্ষণ পরিচালনা করবেন। ইউআরসি টিআরসি \ ইন্সট্রাক্টর/ দায়িত্বপ্রাপ্ত ইটারগণ প্রশিক্ষণ শুরুর পূর্বেই প্রশিক্ষণ পরিচালনার প্রয়োজনীয় উপকরণ সংগ্রহ করে নির্ধারিত দিনে সরবরাহ করবেন।
 
গ) প্রশিক্ষণসূচী, বাজেট বিভাজন যথাযথভাবে অনুসরণাপূর্বক প্রশিক্ষণ পরিচালনা করতে হবে।  ঘ) প্রতিদিন সকাল ০৯.০০ টা থেকে বিকাল ০৫.০০ টা পর্যন্ত প্রশিক্ষণ পরিচালিত হবে। প্রশিক্ষনার্থীদের সকাল ০৮.৩০ ঘটিকায় প্রশিক্ষণ ভেন্যুতে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে উপস্থিতি নিশ্চিত করতে হবে। ঙ) উপজেলা/ থানা শিক্ষা অফিসার শিক্ষকের নাম, পদবী, অনলাইন প্লাটফর্ম মুক্তপাঠে সম্পন্নকৃত প্রশিক্ষণের সার্টিফিকেট ও অন্যান্য তথ্যাদি উল্লেখপূর্বক বর্ণিত প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণের জন্য ইউআরসি টিআরসি ট্রাক্টর ট্রাক্টরের সাথে সমন্বয়পূর্বক ব্যাচওয়ারী শিক্ষক মনোনয়ন প্রদান করবেন।
 
উপজেলা শিক্ষা অফিসার ও ইউআরসি / টিআরসি ইন্সট্রাক্টর যথানিয়মে PEMIS সফটওয়্যারে শিক্ষকগণের জন্য শিক্ষাক্রম শিক্ষার শিক্ষক ও প্রশিক্ষকদের তথ্যাদি এন্ট্রি নিশ্চিত করবেন। তথ্য জিনিত কোন সমস্যা হলে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের আইএমডি বিভাগের সাথে ই-মেইলে [email protected]) যোগাযোগ করা যেতে পারে।  চ) যেসকল শিক্ষক অনলাইন প্লাটফর্ম মুক্তপাঠে প্রশিক্ষণটি সম্পন্নপূর্বক সার্টিফিকেট সংগ্রহ করেছেন শুধুমাত্র তারাই এ প্রশিক্ষণটি করতে পারবেন। প্রশিক্ষণে প্রতি ব্যাচে ৩০ জন শিক্ষক প্রশিক্ষণার্থী হিসাবে অংশগ্রহণ করবেন।
 
কোন অবস্থাতেই একজন শিক্ষক একাধিকবার উক্ত প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না।  ছ) শিক্ষকগণের জন্য শিক্ষাক্রম বিস্তারণ প্রশিক্ষণটি সম্পূর্ণ নতুন ম্যানুয়াল দ্বারা পরিচালিত হবে। তাই প্রশিক্ষণার্থী মনোনয়ন প্রদানের ক্ষেত্রে প্রতিটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকগণ এ প্রশিক্ষণ গ্রহণের আওতায় থাকবেন। প্রতিটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক শিক্ষাক্রম বিস্তরণ প্রশিক্ষণ গ্রহণ করবেন। কোনক্রমেই একটি বিদ্যালয় হতে একই ব্যাচে একাধিক শিক্ষককে মনোনয়ন দেয়া যাবে না।
 
জ) প্রযোজ্য ক্ষেত্রে বিভাগীয় উপপরিচালক/জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার/পিটিআই সুপারিনটেনডেন্ট/উপজেলা শিক্ষা অফিসার/ইউআরসি ইন্সট্রাক্টরগণ ২০২৩ সনের শিক্ষকগণের জন্য শিক্ষাক্রম বিস্তরণ প্রশিক্ষণ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত মাস্টার/কী ট্রেইনারদের মধ্য থেকে ০২ (দুই) জন প্রশিক্ষককে ইউআরসি/টিআরসি ইন্সট্রাক্টর/দায়িত্বপ্রাপ্ত ইন্সট্রাক্টরগণের সাথে সমন্বয়পূর্বক প্রশিক্ষকের দায়িত্ব প্রদান করবেন (চলমান ডিপিএড পিইলটিং পিটিআই-এর ইন্সট্রাক্টর ব্যতীত)। বিশেষ ক্ষেত্র ছাড়া একজন প্রশিক্ষক পরপর দু’ব্যাচে প্রশিক্ষকের দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না।
 
ঝ) অতিরিক্ত প্রশিক্ষক/প্রশিক্ষণকক্ষের সুবিধা থাকা সাপেক্ষে একই সাথে ২ (দুই) টি ব্যাচ পরিচালনা করা যেতে পারে। এক্ষেত্রে কর্মরত সহকারী ইন্সট্রাক্টর কো-অর্ডিনেটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। কোন কারণে প্রশিক্ষকের ঘাটতি হলে প্রযোজ্য ক্ষেত্রে বিভাগীয় উপপরিচালক/জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার/পিটিআই সুপারিনটেনডেন্ট পার্শ্ববর্তী জেলা/উপজেলা/থানা হতে প্রশিক্ষক মনোনয়ন দিবেন। ঞ) প্রশিক্ষক ও প্রশিক্ষণার্থী মনোনয়নে কোন অনিয়ম পরিলক্ষিত হলে মনোনয়নকারী কর্মকর্তা ব্যক্তিগতভাবে দায়ী থাকবেন।
 
ট) ইউআরসি/টিআরসি ইন্সট্রাক্টর/দায়িত্বপ্রাপ্ত ইন্সট্রাক্টর কোর্স কো-অর্ডিনেটর হিসেবে ও সহকারি ইন্সট্রাক্টর সহায়ক কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। উল্লেখ্য, কোর্স-কোঅর্ডিনেটর ও সহায়ক কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালনের সময় একই ব্যক্তি অন্য কোন প্রশিক্ষণের প্রশিক্ষক/কো-অর্ডিনেটর/প্রশিক্ষণার্থী/সহায়ক কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না। তবে একই সাথে একাধিক ব্যাচ পরিচালিত হলে সেক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও কর্মচারি আর্থিক বিধিবিধান অনুযায়ী ভাতা গ্রহণ করতে পারবেন।
 
ঠ) প্রশিক্ষণ শেষে প্রশিক্ষণার্থীগণকে মূল্যায়নপূর্বক মূল্যায়ন প্রতিবেদন নিজ দপ্তরে সংরক্ষণ করবেন এবং নির্দেশনা অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। ড) পিটিআই সংলগ্ন পরীক্ষণ বিদ্যালয়ে সংযুক্ত শিক্ষকগণ ও শিশুকল্যাণ ট্রাস্ট কর্তৃক পরিচালিত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকগণকে যথ নির্দেশনা অনুসরণ করে উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার এ প্রশিক্ষণে অন্তর্ভূক্ত করবেন।
 
ঢ) প্রশিক্ষণ চলাকালীন যেকোনো সময় উপজেলা, জেলা, অধিদপ্তর ও মন্ত্রণালয়ের মেন্টরগণ প্রশিক্ষণ মনিটরিং ও মেন্টরিং গাইডলাইন অনুযায়ী প্রশিক্ষণ পরিবীক্ষণ করবেন। ণ) প্রশিক্ষণের সমাপনী দিনে ইউআরসি / টিআরসি ইন্সট্রাক্টর/ দায়িত্বপ্রাপ্ত ইন্সট্রাক্টর সকল অংশগ্রহণকারীকে প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ সম্পর্কিত সনদপত্র প্রদান করবেন।
 
ত) অর্থিক বিধিবিধান অনুযায়ী ইউআরসি/টিআরসি ইন্সট্রাক্টর/দায়িত্বপ্রাপ্ত ইন্সট্রাক্টর আয়ন-বায়ন কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন এবং বাজেট বিভাজন অনুসারে প্রশিক্ষণের যাবতীয় ব্যয় নির্বাহ করবেন। তিনি যে কোনো আর্থিক অনিয়মের জন্য ব্যক্তিগতভাবে দায়ী থাকবেন। ২) বাজেট বিভাজনের ৬ নং ক্রমিকে উল্লেখিত প্রশিক্ষণ উপকরণ খাতের বরাদ্দ হতে পোস্টার, মার্কার পেন, সাইন পেন, প্যাড, কলম, পেন্সিল, সার্পনার, ইরেজার, নেম কার্ডসহ প্রশিক্ষণ ম্যানুয়ালের তথ্যপত্র, অনলাইন প্রশিক্ষণের তথ্যপত্র।
 
এনসিটিবি কর্তৃক প্রণীত সর্বশেষ ধারাবাহিক মূল্যায়নের নির্দেশনার (ডায়েরি-১ ও ২) তথাপত্র প্রিন্ট/ফটোকপি করে প্রত্যেক প্রশিক্ষণার্থীকে সরবরাহ করতে হবে। ৩। নবসৃষ্ট নিম্নোক্ত উপজেলার শিক্ষকগণের প্রশিক্ষণ ব্যয় নিম্নে বর্ণিত সাবেক উপজেলায় প্রেরণ করা হয়েছে। তাই নবসৃষ্ট উপজেলাসমূহের শিক্ষকগণ সংশ্লিষ্ট সাবেক উপজেলা হতে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করবেন। এক্ষেত্রে ইউআরসি ইন্সট্রাক্টর উভয় উপজেলার উপজেলা শিক্ষা অফিসারের সাথে সমন্বয়পূর্বক ব্যাচ এর শিক্ষক নির্বাচন করবেন।
 

Check Also

প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার সময়সূচী ও প্রবেশপত্র ডাউনলোড ২০২৪ | Primary Assistant Teacher Admit Card Download

প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার সময়সূচী ও প্রবেশপত্র ডাউনলোড ২০২৪ – Primary Assistant Teacher Admit …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *