নিউইয়র্ক নগর কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ট্রাম্পের মামলা

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প নিউইয়র্ক নগর কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। গত ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটল হিলে হামলার জের ধরে নিউইয়র্কে ট্রাম্পের প্রতিষ্ঠানের ব্রঙ্কসে গলফ ক্লাব পরিচালনার চুক্তি বাতিল করে দেওয়া হয়েছে। এ কারণেই মামলা করেছেন ট্রাম্প।

২১ জুন ট্রাম্প অর্গানাইজেশন এ নিয়ে দায়ের করা মামলায় বলেছে, নগর কর্তৃপক্ষ পার্ক পরিচালনার চুক্তি বাতিল করতে পারে না। চুক্তি নবায়নসহ মামলায় ব্যবসায় ক্ষতিপূরণ দাবি করা হয়েছে।

ট্রাম্প অর্গানাইজেশনের পক্ষ থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, নগরের মেয়র বিল ডি ব্লাজিও সম্পূর্ণ রাজনৈতিক বিদ্বেষ থেকে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। মুক্ত বাণিজ্য সুবিধার পরিবর্তে নিউইয়র্ক নগরের মেয়র তাঁর রাজনৈতিক চিন্তাকেই প্রাধান্য দিয়েছেন।

৬ জানুয়ারি ক্যাপিটল হিলে হামলার পর মেয়র বিল ডি ব্লাজিও গত ১৩ জানুয়ারি বলেছিলেন, নগরের পক্ষ থেকে আইনগত সব বিষয় খতিয়ে দেখা হয়েছে। নগরের পার্ক ও উদ্যান ব্যবস্থাপনার চুক্তিতে বলা আছে, কোনো প্রতিষ্ঠান বা প্রতিষ্ঠানের পরিচালক অপরাধমূলক তৎপরতায় জড়িত থাকলে তাঁদের সঙ্গে নগর সব ব্যবসায়িক চুক্তি বাতিল করতে পারবে।

গত নির্বাচনের ফলাফল না মেনে সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তাঁর সমর্থকদের উসকানি প্রদান অব্যাহত রাখেন। কোনো প্রমাণ ছাড়াই তিনি নির্বাচনে জালিয়াতি হয়েছে বলে দাবি করতে থাকেন। এ নিয়ে ওয়াশিংটন ডিসি উত্তপ্ত হয়ে উঠে।

গত ৬ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের নানা জায়গা থেকে ট্রাম্পের উগ্র সমর্থকেরা ক্যাপিটল হিলে জমায়েত হন। ডোনাল্ড ট্রাম্প সেখানে উসকানিমূলক বক্তৃতা দেওয়ার পরই ক্যাপিটল হিলে হামলার ঘটনা ঘটে। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে নজিরবিহীন এ হামলায় পাঁচজনের মৃত্যু হয়। কংগ্রেসের অধিবেশন চলাকালীন হামলায় আইনপ্রণেতাদের জীবন সংশয় দেখা দেয়।

এ ঘটনার জের ধরে সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নামে দ্বিতীয় দফা অভিশংসন প্রস্তাব গৃহীত হয়। মার্কিন সিনেটে ট্রাম্পের অভিশংসন প্রস্তাবের পক্ষে অধিকাংশ ভোট পড়লেও দুই-তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতার অভাবে তাঁর নামে অভিশংসন দণ্ড কার্যকর করা যায়নি।

ডোনাল্ড ট্রাম্প এক সময় নিউইয়র্কের বাসিন্দা ছিলেন। ২০১৬ সালে একজন নিউইয়র্কার হিসেবেই প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। ট্রাম্প তাঁর পারিবারিক ব্যবসা-বাণিজ্যের গোড়াপত্তন করেন নিউইয়র্ক নগর থেকেই। প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার পর নিউইয়র্কের সঙ্গে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সম্পর্কের অবনতি হতে শুরু করে।

২০১৭ সালে দিকে তিনি তাঁর স্থায়ী আবাসনের রাজ্য হিসেবে ফ্লোরিডাকে বেছে নেন। গত ২০ জানুয়ারি হোয়াইট হাউস ত্যাগ করার পর পরিবার নিয়ে ট্রাম্প ফ্লোরিডায় বসবাস করছেন। তিনি অভিযোগ করে আসছেন, নিউইয়র্ক তাঁর প্রতি অবিচার করে আসছে।

Check Also

সংক্ষিপ্ত বিশ্ব সংবাদ: ২৮ জুন ২০২১

প্রতিদিনই আমাদের চারপাশে অসংখ্য ঘটনা ঘটছে। এর মধ্যে হয়তো আলোচনায় আসে হাতেগোনা কিছু। তবে সময় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *