করোনা নিয়ে চীন দিলো সুখবর, ভ্যাকসিন পরীক্ষায় শতভাগ সাফল্য তাদের

বর্তমানে আতঙ্কের এক নাম করোনাভাইরাস। এই অদৃশ্য শক্তির কারণে স্থবির হয়ে আছে বিশ্ব, থমকে আছে অর্থনীতির চাকা।আর ঠিক এই সময়ই সুখবর নিয়ে হাজির হলো চীন। তারা জানালো, করোনাভাইরাস প্রতিরোধের শতভাগ কার্যকর ভ্যাকসিন আবিষ্কার করতে সক্ষম হয়েছে।

সম্প্রতি বানরের শরীরে একটি নতুন উদ্ভাবিত ভ্যাকসিন (প্রতিষেধক) প্রয়োগ করে শতভাগ সাফল্য পেয়েছেন চীনা গবেষকরা। তারা বলছেন, প্রচলিত
ভাইরাসপ্রতিরোধী প্রক্রিয়াই অনুসরণ করেই ভ্যাকসিনটি তৈরি করা হয়েছে। কোনো প্রাণীর শরীরে এটি প্রয়োগ করলে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়, যা ভাইরাস ধ্বংস করতে সহায়তা করে।

ভ্যাকসিনটির নাম ‘পিকোভ্যাক’। বেইজিংভিত্তিক প্রতিষ্ঠান সিনোভ্যাক বায়োটেক এ ভ্যাকসিন তৈরি করেছে। মার্চ মাসের শুরুতে রিসাস ম্যাকাকিউস প্রজাতির একদল বানরের শরীরে নতুন উদ্ভাবিত পিকোভ্যাক ভ্যাকসিনটি প্রয়োগ করেন চীনা গবেষকরা। এর তিন সপ্তাহ পরে বানরগুলোকে করোনাভাইরাসের সংস্পর্শে নেয়া হয়। এক সপ্তাহ পরে দেখা যায়, যেসব বানরের শরীরে ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয়েছিল তারা করোনায় সংক্রমিত হয়নি।

আর যেসব বানরকে ভ্যাকসিন দেয়া হয়নি তাদের ফুসফুসে করোনাভাইরাসে উপস্থিতি পাওয়া যায়। তাদের মধ্যে কয়েকটির শরীরে নিউমোনিয়ার উপসর্গও দেখা দেয়।

উল্লেখ্য,মহামারী করোনাভাইরাস প্রতিরোধে এর ভ্যাকসিন তৈরিতে গবেষণাগারে নিরলস শ্রম দিয়ে যাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা।ভ্যাকসিনটির দ্রুত আবিষ্কারে ঝুঁকি নিয়েই সরাসরি মানবদের এর প্রাথমিক পরীক্ষা চালিয়েছেন যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্রের ভাইরোলজিস্টরা। সেসব পরীক্ষায় এখনো শতভাগ সাফল্য না আসলেও ভিন্ন এক সফলতার কথা জানাল চীনের বিজ্ঞানীরা।

ডেইলি বাংলাদেশ/

Coronavirus is currently one of the names of panic. Due to this invisible force, the world has come to a standstill, the wheel of economy has come to a standstill. And just at this time China appeared with the good news. They said that they have been able to find a 100% effective vaccine against coronavirus.

Recently, Chinese researchers have achieved 100 percent success by applying a newly invented vaccine (antidote) to the body of monkeys. They say the vaccine has been developed following the conventional anti-virus process. When it is applied to the body of an animal,antibodies are produced, which help to destroy the virus.

The name of the vaccine is ‘Picovac.The vaccine was developed by Beijing-based Synovac Biotech. In early March, Chinese researchers applied the newly invented Picovac vaccine to the bodies of a group of monkeys of the Rhesus macaque species. Three weeks later, the monkeys were exposed to the coronavirus. One week later, the monkeys that were vaccinated were not infected with the corona.

And coronavirus is found in the lungs of monkeys that have not been vaccinated. Some of them also have symptoms of pneumonia.

It is worth mentioning that the scientists are working tirelessly in the laboratory to make a vaccine to prevent the epidemic coronavirus. Virologists in the United Kingdom and the United States have conducted preliminary tests on the vaccine directly at the risk of rapid discovery.

Although the experiments have not been 100 percent successful yet, Chinese scientists have reported a different success.

Daily Bangladesh

Check Also

ভ্যাকসিন ছাড়াই নির্মূল হবে করোনা, সুখবর দিলেন গবেষক

করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন এখনো আবিষ্কার হয়নি। তবে তিনটি প্রতিষেধক বাজারে আসার অপেক্ষায় রয়েছে, চলছে চূড়ান্ত পর্বের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *