fbpx

করোনায় আটকে আছে চার শতাধিক পরীক্ষা

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৯ লাখ শিক্ষার্থী করোনার কারণে বিপাকে পড়েছে। পাঠদান বন্ধের পাশাপাশি বিভিন্ন পরীক্ষাও বাতিল হচ্ছে। সব মিলিয়ে আটকে আছে অন্তত চার শতাধিক পরীক্ষা। অনার্স চতুর্থ বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা অর্ধেক হবার পরই বন্ধ হয়ে যায় প্রতিষ্ঠান। সংশ্লিষ্টরা বলছেন,

যদি জানুয়ারিতেও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালু করা যায় তবুও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের এই পরীক্ষা জট কাটিয়ে উঠতে অন্তত ৩ বছর সময় লাগবে। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে জানানো হয়েছে, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি পাস কোর্স দ্বিতীয় বর্ষ ও তৃতীয় বর্ষ, মাস্টার্স ফাইনাল এপ্রিলের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবার কথা ছিল।

কিন্তু করোনা সংক্রমণের কারণে এসব পরীক্ষা স্থগিত রাখা হয়। ডিগ্রি পাস কোর্সে প্রতিটি বর্ষে ৩৪টি পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। এছাড়া মাস্টার্স ফাইনালে পরীক্ষা হবার কথা ছিল ৩১টি। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় বলছে, আগস্ট পর্যন্ত মাস্টার্স প্রিলিমিনারি, অনার্স প্রথম বর্ষ পরীক্ষা হবারও কথা ছিল।

প্রতিটি বর্ষের ৩১টি বিষয়ে পরীক্ষা রয়েছে। কিন্তু করোনার কারণে এই পরীক্ষার সূচিও করা যায়নি। অনার্স চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষা অর্ধেক হবার পর বন্ধ হয়ে যায় প্রতিষ্ঠান। এতে আটকে আছে এসব শিক্ষার্থীর ব্যবহারিক পরীক্ষাও। এছাড়া শতাধিক পরীক্ষা আটকে আছে বিভিন্ন প্রফেসনাল কোর্সের।

সব মিলিয়ে ৪ শতাধিক পরীক্ষা আটকে আছে। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মো. বদরুজ্জামান বলেন, আমরা কলেজ খোলার অপেক্ষায় আছি। কলেজ চালু হলেই স্থগিত পরীক্ষা নেওয়া হবে। নতুন সূচিও দেওয়া হবে।

শেয়ার করুন বন্ধুদের

Check Also

ঈদের আগেই ছুটি নিয়ে প্রাথমিকে ‘দুঃসংবাদ’, জরুরি নির্দেশনা

প্রাথমিকে আবেদনে ভুলক্রটি সংশোধনের সুযোগ

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ আবেদনে ভুলক্রটি সংশোধনের সুযোগ দিচ্ছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর (ডিপিই)। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *